লোটাস (পদ্ম) ফুল । Bangla1news.com

বাইকে স্বাগতম এবং শুভেচ্ছা যানাচ্ছি বাংলা ‍ওয়ান নিউজ এর পক্ষ্য থেকে । আজ আমরা একটি ফুল সম্পর্কে জানবো। সারা পৃথীবিতে প্রায় সব মানুষই ফুল পছন্দ করে থাকে। আর লক্ষ্য লক্ষ্য ফুলের মাঝে একটি ফুল হলো লোটাস বা ইন্ডিয়ান পদ্মা ফুল।

এটার নাম  ভারতীয় লোটাস, কামাল, পদ্মা ফুল বা পবিত্র লোটাস নামে পরিচিত । বৈজ্ঞানিক নাম Nelumbo nucifera ( নেলুম্ব নুসিফেরা )। এটি গৃহীত হয় 1950 সালের দিকে ।এই লোটাস ফুল বা পদ্মা ফুল পাওয়া যায়  দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলির নেটিভ অঞ্চলে, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ, জাপানে এবং আমেরিকাতে ব্যাপক চাষ করা । এটা জন্মলাভ করে থাকে পুকুর, হ্রদ এবং কৃত্রিম পুলের মত স্থায়ী জলাশয়ে।এটার আকার ও গড় 1.5 সেন্টিমিটার লম্বা; অনুভূমিক ছড়িয়ে থাকে 3 মিঃ পর্যন্ত।  পাতা ব্যাসার্ধ – 0.6 মিঃ ফুল ব্যাসার্ধ – 0.2 মিঃ।

ফুলকে ঘিরে পাপড়ির সংখ্যা গোটা ত্রিশটির মত হয়। এটি  ভারতের জাতীয় ফুল, সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং একটি জাতির উত্তরাধিকার সঙ্গে আবদ্ধ হয়ে আছে।এই ফুলটি ভারতের প্রতি দেশের ইমেজকে শক্তিশালী করতে এবং জাতি সত্যের গুণাবলিকে তুলে ধরতে অগ্রনি ভূমিকা পালন করে।ভারতের জাতীয় ফুল লোটাস । এটি একটি জলজ উদ্ভিজ যা সংস্কৃতে প্রায়ই ‘পদ্ম’ হিসেবে অভিহিত হয় এবং ভারতীয় সংস্কৃতির মধ্যে একটি পবিত্র স্থিতি উপভোগ করে।

এই লোটাস ফুলটি প্রাচীন কাল থেকেই ভারতীয় সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ।ভারতীয় পুরাণের একটি উল্লেখযোগ্য একটি বিষয় এই লোটাস ফুল।তেজ্জদিপ্ত ভারতীয় পরিচয় এবং ভারতীয় মানসিকতার মূল মান উপস্থাপন করে থাকে এই লোটাস ফুল। লোটাস ফুল, আধ্যাত্মিকতা, ফলপ্রসূ, সম্পদ, জ্ঞান এবং আলোকসজ্জা প্রতীক। অন্যদিকে কূট হৃদয় শান্ত করা ও মন বিশুদ্ধতা প্রতীক। জাতীয় ফুল ‘লোটাস’ বা জল লিলি বিস্তৃত ভাসমান পাতা এবং উজ্জ্বল সুগন্ধযুক্ত ফুল যা অগভীর জলের মধ্যে বৃদ্ধি পায়  ।

এনমফাইয়া প্রজাতির একটি জলজ উদ্ভিদ লোটাস।লোটাস ফ্ল্যাটের মত পাতা এবং ফুল এবং দীর্ঘস্থায়ী ডানা থাকে যা তাদের মধ্যে বায়ু স্পেস ধারণ করে থাকে।লোটাস ফুলের একটি অনুপাতীয় নকশার মধ্যে অনেক পাপড়ি অপর্যাপ্ত অবস্থায় থাকে।লোটাস ফুলের অনেকগুলি প্রজননীয় রং ও নক্শার মধ্যে অতিবেগুনি রংটা দ্বারুন লাগে। লোটাসের মূল ফাংশন রাইজোম দ্বারা পরিচালিত হয় যা পানির নীচের কাদা দিয়ে অনুভূমিকভাবে অনুরাগিত হয়।চোখের প্রশান্ত সৌন্দর্য জন্য cherished লোটস, পুষ্পিত্তের পৃষ্ঠে তাদের ফুল খাকা অবস্থায় দেখতে খুবই আনন্দদায়ক হয়।

বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছাত্রীদের জন্য দুটি লাইন, অবস্য এটি সবার জন্যই ।

বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিভাগঃ-

রাজ্যঃ উদ্ভিদ / উপ রাজ্যঃ ভ্রিদি উদ্ভিদ / সুপার ডিভিশনঃ  এমব্রিয়েফিটা / ডিভিশনঃ ট্রেইওফাইটটা  / সাবডিভিশনঃ স্পার্মটোফিটিনা/ ক্লাস বা শ্রেনীঃ ম্যাগনিলিপ্পেড/ সুপার অর্ডারঃ প্রোটিনাই/  অর্ডারঃ প্রোটেইলস/ পরিবারঃ নেলুম্বোনসেই/ লিঙ্গঃ নেলুম্বো/  প্রজাতিঃ Nelumbo nucifera ।

নেলাম্বো নুসিফেরা বা ভারতীয় লোটাস, পূর্ব এশিয়ায় নেতিবাচক হলেও আদি-গ্রীষ্মমন্ডলীয় জলবায়ু পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারা তার জন্য কষ্টকর।ভারত, বাংলাদেশ এবং মায়ানমারসহ ভারতীয় উপমহাদেশে এটি প্রধানতম ফুল গুলোর একটি। কিন্তু বালি, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া প্রভৃতি মতো অন্যান্য দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশেও খুব সাধারণ। পানিতে শরীরের নিচের অংশ থাকে, পদ্মের গোড়া মাটির ভূগর্ভস্থ ভূমি অবস্থিত।এর গোরায় অবস্থিত মূলটি উদ্ভিদটিকে ধরে রাখা, খাদ্য সংগ্রহ সঞ্চয় করা সহ অনেক কাজ করে থাকে ।গোড়ায় অবস্থিত মূল যেটা শালুক নামে পরিচিত সেটার গায়ে অনেক ছোট ছোট লোম থাকে ।লোটাস এর একটি গাছে একটি অথবা দুটি পাতা এবং একটি ফুল হয়।

ফুলগুলি এর ভালোলাগার বিষয় এবং শোভনীয় বস্তু, এরা মূলত গোলাপী বা রঙের সাদা ।কাঁটা, কুঁড়ি, এটি টুকরো টুকরো এবং আঁটসাঁটভাবে প্যাকযুক্ত পাপড়ি সঙ্গে একটি টিয়ার ড্রপ আকার সৃষ্টি করে। ভারতীয় দর্শনের প্রতীক সঙ্গে কমল এই ফুল গভীরভাবে জড়িত হয়ে আছ।

স্বামী বিবেকানন্দ আধ্যাত্মিক বিচ্ছিন্নতার প্রতীক হিসাবে পদ্মর কমল পাতাগুলির তাত্পর্যকে প্রভাবিত করে বলেছিলেন, “যেভাবে পানিতে কমল পাতা ভিজে যায় না,, তাই কাজগুলি আনুপাতিক ফলাফলের সাথে সংযুক্তির দ্বারা নিঃস্বার্থ মানুষকে বাঁধতে পারে না।” কৌতুহলি উদ্ভিদ নিজেই এই শক্তিশালী চিত্রাবলী, আত্মিকভাবে জীবনের আধ্যাত্মিককতাকে পছন্দসই উপায়ের প্রতীকী হয় আছে।

হতে পারে এটি কাদা বা মকর মধ্যে বেড়ে উঠছে, কিন্তু এখনও অভদ্র এবং অপরিমেয় সৌন্দর্য কিছু অব্যাহত ধরে রেখেছে। এটি হিন্দু ও বৌদ্ধ উভয় ক্ষেত্রে পবিত্র বলে মনে করা হয়।ব্রাহ্ম মত অনেক হিন্দু দেবতাদের যেমন লক্ষ্মী এবং সরস্বতী একটি কমল ফুলের উপর বসে থাকতে দেখা যায়।

বৌদ্ধ দর্শনশাস্ত্রের মধ্যে, পদ্ম ফুল মৃত ব্যক্তির জীবনবৃত্তান্তের মধ্যে আত্মার বিশুদ্ধতা রক্ষার প্রবণতা প্রদর্শন করে।এই ফুল ঐশ্বরিক সৌন্দর্য একটি প্রতীক এবং প্রায়ই বিশুদ্ধ এবং সূক্ষ্ম গুণাবলী সঙ্গে কেউ বর্ণনা করার জন্য এই ফুলকেই উপমা হিসাবে ব্যবহৃত হয়।  লেখাটা ভালো লাগলে অবসস্যই শেয়ার করবেন। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।

ছবিঃ pixabay

17Shares

Check Also

South africa vs bangladesh

South Africa VS Bangladesh | Commentary Live Stream । ICC World Cup 2019 । Live Cricket Score

South Africa VS Bangladesh | Commentary Live Stream । ICC World Cup 2019 । Live …

New Zealand vs Sri Lanka | ICC Cricket World Cup 2019 – Match Highlights

Watch full highlights of the New Zealand vs Sri Lanka match at Cardiff, Game 3 …

2 comments

  1. খুব সুন্দর ও তথ্যবহুল পোস্ট। ভাল লাগল। বিশেষ করে ফুলের ছবি গুলো আরও সুন্দর

  2. omirajerbanglanews

    অনক ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *