mohamed morsi
mohamed morsi

মুহাম্মাদ মুরসি ও আমার শিক্ষা

ছবিতে যাকে দেখা যাচ্ছে তাকে অনেকেই চিনেন। উনি হলেন মিশরের সাবেক প্রেসিডেন্ট, মিশরের ব্রাদার হুড রাজনৈতিক দলের অন্যতম ব্যাক্তি মুহাম্মাদ মুরসি (mohamed morsi)


আমি যেটা বুঝাতে চাচ্ছি ও এতদিন ধরে বুঝেছি উনার সম্পর্কে ও ইসলামি রাজনৈতি সম্পর্কে সেটা বলতে ও লিখতে চাচ্ছি। (আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে)
বর্তমানে উনার ব্রাদারহুড সহকারে আরো অনেক ইসলামি গনতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল রয়েছে সারা দুনিয়া জুরে ।

বাংলাদেশে ইসলামি গনতান্ত্রিক রাজনিতি করে জামাতে ইসলাম, ইসলামি আন্দলোন বাংলাদেশ সহ আরো অনেক অনেক দল।


এসমস্ত সকল দলের আশা আমরা গনতান্ত্রিক উপায়ে স্বদেশে ইসলাম কায়েম করবো। সেই চেষ্টা করে যাচ্ছে সবাই।


ভোট বা গনতান্ত্রিক উপায় সর্ব প্রথম একক ভাবে ( আমার ভুল থাকতে পারে) মিশরে ব্রাদারহুড দলটি ক্ষমতায় আসেন। যাদের ইচ্ছা ছিলো ইসলামি স্বাশন কায়েম করবে।
কিছুদিন যেতেই সেই দেশে অযাথা কিছু কারন দেখিয়ে সেনাবাহিনি সেই দেশের নির্বাচিত নেতা, ব্রাদারহুডের নেতা মুহাম্মাদ মুরিসিকে ক্ষমাতা চুত্য করে জেলে হাজতে প্রেরণ করেন।


আজ পর্যন্ত আমি কোন দেশেই দেখিনাই গনতান্ত্রিক উপায়ে ইসলামি দল ক্ষমতা অর্জন করে সেদেশে ইসলাম কায়েম করেছে।


কত সুন্দর গনতান্ত্রিক ভোটে নির্বাচিত হলেন অথচ এই হলো তার ফল।
আমাদের দেশেও বেস কয়েকটি দল ইসলামি রাজনিতি করছে । তারাও স্বপ্ন দেখে গনতান্ত্রিক উপায়ে এদেশে ইসলাম কায়েম করবে।


আমার মনে হয় তখনও মুহাম্মাদ মুরসির মত ঘটনা ঘটবে। আমার এটাও ধারনা সারা পৃথিবীর সকল সেনাবাহি এক অথবা দুই দলে বিভক্ত। অর্থাৎ সাারা পৃথিবীর সেনা বাহিনিকে একটা নিদিষ্ট নিতিমালা থেকে পরিচালনা করা হয়।


ইসলামের শত্রূ যে বা যারা আছে তারাই সারা পৃথিবীর সেনা বাহিনিকে নিয়ন্ত্রন করে থাকে।
যাতে করে গনতন্ত্র নামক গাড়িতে ইসলামি কোন দল বা সংগঠন ফায়দা নিতে না পারে।


বাংলাদেশের জামাতে ইসলাম যৌথভাবে ক্ষমতায় গিয়েছিলেন। তখন খুব একটা কিছু করে উঠতে পারেনি। ক্ষমতায় গিয়ে ইসলামের জন্য কিছু করে উঠতে না পারা একটা ইসলামের দলের সন্মানের বিষয়।


আমার শ্রদ্ধেয় নেতা ( পাবনা-১ আসনের ইসলামি আন্দলোনের পার্থি মাওলানা মুফতি আব্দুল মতিন সাহেব) কে একবার মুহাম্মাদ মুরসির ব্যাপারে বলেছিলাম । হঠাৎ ক্ষমতায় আসা, ইসলামি আইন কানুন বাস্তবায়ন করতে থাকা ও কিছুদিন পরেই ক্ষমতা চূত্য হওয়ার ব্যাপারে ।


তখন উনি বিচক্ষনের মত জবাব দিলেন । রুটি বানানোর জন্য যে কড়াই ব্যাবহার করা হয়, সেই কড়াই গরম হওয়ার আগেই যদি রুটি ছেকতে শুরু করি , সেই রুটি কেমন হয় ??


হ্যা সেই রুটি দেখতে খুবই খারাপ ও খেতেও খারাপ। তার মানে একটা দেশের নিদিষ্ট অংশের মানুষ তোমাকে সাপর্ট করে । কিন্তু সবাই না । অর্থাৎ কড়াই পুরো পুরি গরম হয়নি। তার উপর রুটি ছেকতে শুরু করলে কেমন হবে? ব্যাপারটা তেমনই হয়েছে ।


বাংলাদেশে তো অনেকেই আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি । সরকার ইতিমধ্যে জামাত কে কাবু করে ফেলেছে। এটা ছারাও ইসলামি আন্দলন ও আরো অন্য অন্য অনকে ইসলামি দল তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ।


কিন্তু জাতির ফায়দা আসবে কি ? গোড়া কোনটা ? করনিয় কি তা আমি ও আমরা স্পষ্ট নই।


আমিও ইসলামি আন্দলোন কে সাপর্ট করি । কারন কোন না কোন সংগঠনের সাথে সম্প্রিক্ত না থাকলে গোনাহের সাথে সম্পর্ক সৃষ্টি হয় । আমি নিজেও ইসলামি কালচার ও কর্ম থেকে গাফেল হয়ে গোনায় লিপ্ত থাকবো । ( ইতি মোধ্য কয়েক বার প্রামান পেয়েছি)


এসমস্ত সংগঠনের সাথে উঠাবসা চলাফেরা নিজের আমল ও চরিত্রের উন্নতি আনা যায়।
আমি ও আমরা জানিনা সত্যই গনতান্ত্রিক উপায়ে ইসলামের কতটা ফায়দা হবে । আহলে হাদিসের আলেম গন এটাকে মানেই না। তবুও আমি যেটুক বুঝি “ নাই মামার থেকে কানা মামা ভালো ’’

এই মহান নেতা জালিমের কারাগারে থাকতেই মৃত্যু বরন করেছেন । আল্লাহ উনাকে বেহেস্তে নসিব করুক । আমিন


চলুক ইসলামি গনতন্ত্রের চেষ্টা । ৯০ ভাগ মুসলিমের দেশে আপনি যুদ্ধ করে ইসলাম কায়েম করতে পারবেন না। কাকে মারবেন? সবাই কালেমা পড়া আল্লাহ ও রাসূল সাঃ কে বিশ্বাস করা আওয়ামিলিগ, কালেমা পড়া আল্লাহ ও রাসূল সাঃ কে বিশ্বাস করা বিএনপি ও অন্য অন্য দলকে সাপর্ট করে । কাকে মারবেন ?


এর চাইতে এখানে যে ক্ষমতার কালচার সেভাই চেষ্টা করা উচিত । সবটাই আল্লাহর হাতে। আল্লাহ সিদ্ধান্ত নিবেন।


মোঃ আতিকুর রহমান অমি রাজ । পাবনা, বাংলাদেশ। 18.6.2019

0Shares

Check Also

আমাদের নিখুঁত পরিকল্পনাগুলো কেন ব্যর্থ হয়! | Bangla1news.com

আমাদের নিখুঁত পরিকল্পনাগুলো কেন ব্যর্থ হয়! | Bangla1news.com

আমাদের নিখুঁত পরিকল্পনাগুলো কেন ব্যর্থ হয়! | Bangla1news.com

‘মানুষ’ চেনার ব্যাপারে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুর বেশ চমৎকার একটা ঘটনা । আরিফ আজাদ

‘মানুষ’ চেনার ব্যাপারে ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুর বেশ চমৎকার একটা ঘটনা আছে। একবার এক লোক এসে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *