বেটে ও লম্বা । bangla golpo

এক রাজপুত্র ছিলো খুবই খাটো ও বেটে। অন্য দিকে তার ভাইয়েরা ছিলো উচু লম্বা । জনাব বাদশা তার এই বেটে পুত্রকে খুব একটা পছন্দ করতে না। তাকে যে তার বাবা পছন্দ করে না সে এটা বুঝতে পেরে তার বাবাকে জিজ্ঞাস করলো আব্বাজান, লম্বা লম্বা আহমক অপেক্ষায় বেটে খাটো অনেক ভালো।

বেটে বা খাটোর দাম

যে বেটে বা খাটো তার তেমন দাম থাকবে না বিষয়টা এমন না। বরং অনেক ছোট খাট বস্তু আছে যার মূল্য অনেক বেশি। লম্বা লম্বা লোহার চাইতে ছোট হিরার ‍টুকরার দাম অনেক। আবার হাতি, ছাগল অপেক্ষায় অনেক ছোট । অথচ ছাগল আমাদের জন্য হালাল হাতি নয়। এখানে ছাগল কত বেটে আর হাতি কতই না লম্বা।


ভূ-পৃষ্টের সবচে ছোট পাহাড় হলো তূর পাহাড়। অথচ আল্লাহ তায়ার নিকট সেটাই সবচে বেসি পছন্দনিয় অধিক মযার্দাশীল ও মরতবার।

পু্ত্র তার বাদশা বাবার দিকে লক্ষ্য করে বলছেন আপনি এমন কথা অবশ্যই শুনেছেন যে একজন শীর্ণকার ব্যাক্তি বুদ্ধিমান লোক এক মোটা আহমকের লক্ষ্য করে বলছিলো যে । আরবি ঘোরা চাই । সেই ঘোরা যতই চিকন ও শুকনা হোক। কারন তা একপাল গাধার অপেক্ষায় উত্তম।

ছেলের এমন রাজা হাসলেন । মন্ত্রী সভার সবাই হাসলেন । অন্যদিকে তার ভাইয়েরা মন খারাপ করলেন।

মানুষ যতক্ষন পর্যন্ত চুপ চাপ থাকে ততক্ষন পর্যন্ত তার দোষ গুন গোপন থাকে । অপ্রকাশিত থেকে যায়। তাই কোন চুপ ও নিরব লোক দেখলে তাকে বোকা নিবোর্ধ মনে করার কিছুই নেই।

কিছুদিন পরে

কিছুদিন পরে ঐ বাদশাহের শত্রুরা বাদশার সৌনিকদের উপর আক্রমন করলো। এর পরে যুদ্ধ ঘোষনা ও উভয় পক্ষ সামনা সামনি যুদ্ধের জন্য ময়দান উপস্থিত হলো। সবার সামনে যে উপস্থিত ছিলো সে জন হলেন বাদশাহের সেই ছোট ছেলেটা।

সে বলতে লাগলো শুন তোমরা আমি এমন ভীত নই যে ময়দান থেকে পিঠ দেখিয়ে পালিয়ে যাবো। বরং আমি ও আমরা এমন যে যুদ্ধের ময়দানে তোমরা আমাকে মাথা হয় মাটিতে পাবে আর না হয় যুদ্ধরত অবস্থায় দেখবে। তবুও আমি রনাঙ্গন ত্যাগ করার মত রাজপুত্র না।

এমন উত্তেজনা পূর্ন কথা বলে ময়দানে ঝাপিয়ে পড়লো কিছু ক্ষনের মধ্যেই শত্রুপক্ষের সরদাদের মাথা কেটে হত্যা করে ফেললো। এর মাঝে মনে পরে গেলো যে তার পিতা তাকে খাটো ও বেটে বলে তুচ্ছ তাছিল্য করেছিলো। সে পিতার কাছে ফিরে গিয়ে কদম বুসি রেলো এবং বললো, তোমরা আমাকে তুচ্ছ জ্ঞান করেছিলে । কিন্তু বাবা মোটা ও লম্বাকেই শুধু বুদ্ধিমান জ্ঞান করো না। বুদ্ধি ও বাহাদুরী শুধু মোটা হাড্ডিতেই থাকে না বরং বাহাদুরীর মূল ভিত্তি হলো আন্তরিক শক্তির উপর। দৈহিক অবকাঠামোর ওপর না। যুদ্ধের ময়দানে চিকন ও সরু কমর বিশিষ্ট ঘোড়াই অধিক কাজে আসে। মোটা সতেজ গুরু মহিষের যুদ্ধের ময়দানে কোন কাজ নেই।

এর ভিতরেই দেখা গেলো শত্রু পক্ষের আরো অনেক সৈনিক হাজির হয়ে শক্তি সঞ্চয় করছে। তা দেখে রজার সৈনিকের রা পালাতে শুরু করেছে। তখন রাজার এই বেটে পুত্র তার সকল সৈনিকদের উদেশ্য বলতে লাগলো হে মদের্ মুজাহিদগন জয়লাভের চেষ্টায় মেতে উঠো। কাপুরুষের ন্যায় মেয়েদের পোষাক পরিধান করো না। এই শ্লোগানে তারা লজ্জায় পড়ে গেল। ফলে তারা না পালিয়ে গিয়ে বীর বিক্রমে ময়দানে ঝাপিয়ে পড়লো। ফলে অল্প সময়ের মধ্যে জয় অর্জন করে ফেললো।

এর পরে বাদশা তার এই ছেলে টেনে নিয়ে কপালে মুখে চুম খেতে লাগলেন। এবং কিছুদিন পরে এই সন্তান কেই সিংহাসনের জন্য উপযুক্ত মনে করে তাকে মসনদে বসালেন।

ভাইয়েদের হিংসা

এই দৃশ্য দেখে তার ভাইয়েরা হিংসায় জ্বলতে শুরু করলো। তাই সবাই মিলে তাকে হত্যা করার চেষ্টা চিন্তা করলো। তারা খাবারে বিষ মিশিয়ে তাকে খাওয়ানোর চেষ্টা করলো। কিন্তু সে বুঝতে পারলো এবং বললো না এমন খাবার আমি খাবো না যে খাবার খেলে বুদ্ধিমান ছেলে মারা যাবে এবং বোকা গাধা গুলো বেচে থাকবে ।

বিষয়টা তাদের এক বোন বাদশাহের কাছে বিস্তারিত খুলে বললো । বাদশাহ বিষয়টা মিমাংসা করে দেয়ার জন্য সবাইকে ডাকলেন। এবং তাদের বিভিন্ন্য অঞ্চলের জমিদার হিসাবে নিযুক্ত করে সেই সমস্ত এলাকায় পৌছে দিলেন।

কথায় আছে

দশজন দরবেশ এক কম্বলের নিচে ঘুমাতে পারে কিন্তু দুই রাজা এক রাজ্যে থাকতে পারে না।

শিক্ষা-১ঃ কারো বাহ্যিক বেশ ভূষা দেখে তাকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করা অনুচিৎ, বরং তার স্বভাব চরিত্র গভীরভাবে অবলোকন করা চাই।

শিক্ষা-২ঃ ক্ষমতাধর ব্যাক্তিদের জন্য অত্যাবশ্যকীয় বিষয় হলো, তাদের সময়ে ঘটে যাওয়া সকল ধরনের ঝগড়া বিবাদ ও দাঙ্গা তাদের সময়েই মিটিয়ে ফেলা। যাতে তাদের মৃত্যুর পরে এর জের ধরে বড় কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা পরিবেশ সৃষ্টি না হয়।

আরো পড়ুন

রাজা বাদশাগণের আচার আচারণ Bangla Golpo

তাজ মহলের গল্প। Bangla Golpo

একটি স্বপ্ন । bangla golpo

0Shares

Check Also

তাজ মহলের গল্প। Bangla Golpo

তাজ মহলের গল্প। Bangla Golpo

“তাজমহল’’এমন একটা শব্দ যা পড়া বা শোনার পরেই মনে পরে যায় শ্বেতমর্ময় পাথরের একটা বিশাল …

bangla golpo

রাজা বাদশাগণের আচার আচারণ Bangla Golpo

রাজা বাদশাগণের আচার আচারণ Bangla Golpo এক বাদশা সম্পর্কে শুনতে পেয়েছি যে, তিন রাগের বশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *