পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গ্রন্থাগারে ১০টি বা ১০ লক্ষ্য বই আছে কি ? এমন প্রশ্ন থেকে বই আছে কিনা এটাই বড় কথা ।  

অবশ্যই ক্ষেপাটে পাঠকের জন্য বই হলো আসল কথা, কেননা আপনি যদি বই পড়তেই থাকেন আপনার জন্য তখন প্রচুর ‍ বই প্রয়োজন হবে । তবে জানেন কি ? আমাদের পৃথিবীতে এমন কিছু লাইব্রেরী আছে যা আপনি সারাজীবন পড়েও শেষ করতে পারবেন না । 

জীবনে বই পাবেন অনেক কিন্তু জীবন টাই ছোট, তবুও পড়তে হয় আর মানেুষের চাহিদা ও চাওয়া পাওয়াতে বই কতটা জড়িত তাই আজ তুলে ধরার চেষ্টা করবো ।

 

লাইব্রেরি অফ কংগ্রেসঃ বই এর সংখ্যাঃ একশত বাষট্টি লক্ষেরও বেশি বই এই লাইব্রেরীতে অবস্থান করছে ওয়াশিংটন ডি.সি তে। এটাই আমেরিকার জাতীয় লাইব্রেরী ও পৃথিবীর সবচেয়ে বড় লাইব্রেরী। এই লাইব্রেরীটি ১৮০০ সালে প্রতিষ্ঠিত, এটি অবাক করা ৪৫০ টির বেশি ভাষায় লেখা বই রয়েছে। এই লাইব্রেরীতে এমনি একটি বই রয়েছে যেটা পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট বই যেটা কিনা সুচ দিয়ে উল্টিয়ে পড়তে হয়। স্ট্র্যাডিভিয়ারিয়াল ভলিয়েন্স এবং ডিজিটালভাবে আর্কাইভ সমূহ এখানে সংগ্রহীত আছে।

 

ব্রিটিশ লাইব্রেরীঃ একশত পঞ্চাশ লক্ষেরও বেশি বই এই লাইব্রেরীতে অবস্থান করছে।

এটা ইউনাইটেড কিংডমের জাতীয় গ্রন্থাগার এবং এর অবস্থান লন্ডন শহরে । আর এটাই পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম গ্রন্থাগার। তাদের আশ্চর্য সংগ্রহে হাতে লেখা বিট্লস গানের সংগ্রহ রয়েছে যা সারা পৃথিবী ব্যাপি জনপ্রিয়। 

লাইব্রেরী এবং আর্কাইভস কানাডাঃ

 বই এর সংখ্যাঃ চুয়ান্ন লক্ষেরও বেশি বই এই লাইব্রেরীতে অবস্থান করছে

এটি কানাডার ন্যাশনাল লাইব্রেরী এবং এর অবস্থান অটোয়াতে । এই  লাইব্রেরী কানাডার বিভিন্ন তথ্য ও ইতিহাস সংগ্রহ করে থাকে । তারা গুরুত্ব পূর্ন তথ্যই না ল্যাক নামক তথ্যও তারা সংগ্রহ করে থাকে । এই লাইব্রেরীতে অনেক প্রাচিন ছবিও সংগ্রহ করা আছে ।

 

নিউ ইয়র্ক পাবলিক লাইব্রেরীঃ 

 

বই এর সংখ্যাঃ তেপান্ন দশমিক এক লক্ষেরও বেশি বই এই লাইব্রেরীতে অবস্থান করছে

নিউ ইয়র্ক পাবলিক লাইব্রেরী ম্যানহাটনের মধ্যে অবস্থিত এবং এটি বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম লাইব্রেরী।

এই লাইব্রেরীতে অবস্থিত তথ্য গুগোলের অনেক উপকারে আসে । এখানে অনেক প্রাচিন হাতে আকাঁনো ছবি পাওয়া যায়। ঐ সময়ের জনপ্রিয় ঘোড়া দৌড়ের অনেক দামি ছবি এখানে সংগ্রহিত আছে।

 

রাশিয়ান স্টেট লাইব্রেরীঃ

 

 বই এর সংখ্যাঃ চুয়াল্লিশ লক্ষেরও বেশি বই এই লাইব্রেরীতে অবস্থান করছে

এটা মস্কতে অবস্থিত । এটা ১৮৬২ সালে স্থাপন করা হয় । এটার একটি ডাক নাম আছে, সেই নামটা হলো ” “লেলিনকা,,

1Shares